ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন ড. আব্দুল ওয়াদুদ

0

ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র দলীয় কার্যালয়ে ২২ আগষ্ট জমা দিয়েছেন সাবেক ছাত্রনেতা, শিক্ষাবিদ ড. আব্দুল ওয়াদুদ। আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমন্ডি কার্যালয়ে ড. আব্দুল ওয়াদুদ দলীয় নেতা কর্মীসহ মনোনয়ন পত্র জমা দেন।

এ আসনে আমরা প্রধানমন্ত্রীর পাশে এমনই একজন প্রার্থী চাই। ড. ওয়াদুদ তেমনই একজন ব্যক্তি। তিনি দলের জন্য একজন নিবেদিত প্রাণ কর্মী। অপর এক প্রশ্নের জবাবে এ্যাড মোঃ শাহ আলম মল্লিক (নান্না) বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার চলমান উন্নয়নের ধারা চলমান রাখতে একজন সৎ, শিক্ষিত, এক কথায় ক্লিন ইমেজের ব্যক্তি প্রয়োজন। ড. ওয়াদুদ দলের দুঃসময়ের একজন মাঠ কর্মী। দল ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার জন্য নিবেদিত প্রাণ এক ব্যক্তি। আওয়ামী লীগ নেতা জনাব শামীমূল আলম চৌধুরী বলেন, ড. আব্দুল ওয়াদুদ একজন পরীক্ষিত নেতা। তিনি সৎ, শিক্ষিত, যোগ্য, দূরদর্শী ও ধনাঢ্য একজন ব্যক্তি। তিনি সাহারা আপার মত একজন পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা-১৮ আসনের সমাজসেবক, আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ্ব মমতাজ উদ্দিন, এ্যাড মোঃ শাহ আলম মল্লিক (নান্না), আওয়ামী লীগ নেতা শাহাজান বিপ্লব, মোঃ জাকির হোসেন, জনাব শামীমূল আলম চৌধুরী ও অন্যান্যরা। ঢাকা-১৮ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের অকাল মৃত্যুতে এই আসনটি খালি হয়। এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের স্নেহধন্য ড. আব্দুল ওয়াদুদ দলের দুঃসময়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সাথে রাজপথে আন্দোলন সংগ্রামে ছিলেন এক অকুতোভয় মুজিব সৈনিক। তিনি ৯০’র দশকে আন্দোলন সংগ্রামের সম্মুখভাগের একজন তুখোর ছাত্র নেতা। ধারনা করা হচ্ছে এই ছাত্র নেতাই উপ-নির্বাচনে নৌকার টিকিট পাবেন। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আলহাজ্ব মমতাজ উদ্দিন বলেন, এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন আমাদের অত্যন্ত প্রিয় মানুষ ছিলেন এবং আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের কান্ডারী।

দুর্নীতি তাকে কখনও স্পর্শ করতে পারেনি। তার পাওয়ার কিছুই নাই। তার সবই আছে। নেতা-কর্মীরা বলেন, তাকে আমরা মাঠে এনেছি দলের বৃহত্তর স্বার্থে। প্রধানমন্ত্রীর জন্য ব্যাপক জনমত গড়তে ও আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে সব সময়েই আমরা তাকে পাশে পেয়েছি। ঢাকা-১৮ আসনের আপামর জনগোষ্ঠির জন্য তার বিকল্প আর কেউ নাই। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় গত বৃহস্পতিবার ড. ওয়াদুদ এর সাথে তার বাস ভবনে দেখা করেন। এ সময় অনেক নেতা কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

তিনি বলেন সৎ, পরিশ্রমী এবং দলের জন্য নিবেদিত প্রাণ ড. ওয়াদুদ ভাইকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা যদি মূল্যায়ন করেন তাহলে দেশ ও জাতি উপকৃত হবে। ড. ওয়াদুদ ভাই আমাদের জন্য একজন আদর্শবান ছাত্রনেতা। বাংলাদেশে আমরা তার লক্ষ কোটি ভক্ত অনুরাগী রয়েছি। তার মত একজন পরিচ্ছন্ন ও ক্লিন ইমেজের ব্যক্তি এই সময়ে জননেত্রীর পাশে খুবই প্রয়োজন। মনোনয়ন পত্র জমাদানকালে ঢাকা- ১৮ আসনের আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও সুধী সমাজের বিপুল সংখ্যক নেতা কর্মী স্বাস্থ্যবিধি মেনে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে উপস্থিত ছিলেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সাথে আব্দুল ওয়াদুদ এর রাজপথে আন্দোলন সংগ্রামের একটি ঐতিহাসিক ছবি ডান দিক থেকে আব্দুল ওয়াদুদ, জনাব জাহাঙ্গীর কবির নানক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. শামসুল হক, জননেত্রী শেখ হাসিনা, জনাব তোফায়েল আহমেদ, জনাব আব্দুস সামাদ আজাদ ও অন্যান্যরা।

Follow and like:

Leave A Reply